জেলাশাসক কে উত্তরবঙ্গ জনমুক্তি মঞ্চের বিভিন্ন দাবি দাওয়া নিয়ে স্বারকলিপি প্রদান।



৫ ই অক্টোবর ২০২০ সোমবার উত্তরবঙ্গ জনমুক্তি মঞ্চের জেলা কমিটির পক্ষ থেকে উত্তরবঙ্গের অস্বাভাবিক দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে জেলা শাসককে স্মারকলিপি দেওয়া হয়। উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি গৌতম রায় ও সাধারণ সম্পাদক শীতল দাস উত্তরবঙ্গের কনভেনার গৌরীশংকর চৌহান ,সংগঠনের দাবী উত্তরবঙ্গের শাকসবজি থেকে শুরু করে পেট্রোল-ডিজেল সহ বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মূল্য আকাশছোঁয়া অবিলম্বে মূল্য নিয়ন্ত্রণে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আবেদন করেন পরে সংগঠনের পক্ষ থেকে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ না করলে উত্তর বঙ্গের সমস্ত মানুষকে নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলনে সামিল হবেন সংগঠনের পক্ষ থেকে দাবি করা হয় উত্তরবঙ্গের স্বার্থে যে সমস্ত বহুমুখী হিমঘর হয়েছে কিন্তু চালু হয়নি যেমন নিশিগঞ্জ , চান্দামারী ও জেলার অন্যান্য বহুমুখী হিমঘর গুলি ২০১০-২০১১ সালে কাজ সম্পূর্ণ করা হয়েছে কিন্তু সেগুলি এখনো চালু করা হয়নি সংগঠনের দাবি অবিলম্বে হিমঘর গুলিকে চালু করতে হবে । আগামী ৭ই অক্টোবর-২০২০ কেন্দ্রীয় সরকার গোর্খাল্যান্ড বিষয়ে যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক ডেকেছেন সেখানে উত্তরবঙ্গ কে আলাদা কেন্দ্রশাসিত রাজ্য গঠনের বিষয়ে আলোচনা করার জন্য সংগঠনের পক্ষ থেকে জেলাশাসক এর মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয় । সংগঠনের সভাপতি বলেন গত ২০১০ থেকে ২০২০ এই 10 বছর অতিক্রান্ত হওয়ার পরেও কেন হিমঘর গুলো চালু হলো না ,তার সাথে যেখানে কয়েক কোটি টাকার যন্ত্রপাতি সহ বিভিন্ন জিনিসপত্র নষ্ট হচ্ছে এই ব্যাপারে কোন রাজনৈতিক দল কোন কথা বলছে না । সাধারন সম্পাদক বলেন আজকে যখন কোরোনা আবহে সাধারণ মানুষের রোজগার বন্ধের মুখে ।লক্ষ লক্ষ শ্রমিক কাজ হারিয়েছে এই অবস্থায় মূল্যবৃদ্ধি মেনে নেওয়া যায়না ।কেন্দ্রের ও রাজ্যের শাসক গোষ্ঠি এই নিয়ে চিন্তিত নয় তাদের লক্ষ্য ভোটে বৈতরণী পার । উত্তরবঙ্গের কনভেনার গৌরীশংকর চৌহান বলেন অবিলম্বে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে না আসলে সংগঠনের পক্ষ থেকে গোটা উত্তরবঙ্গের বৃহত্তর আন্দোলনে সামিল হবেন ।

0/Post a Comment/Comments

Stay Connected

Business